২ ডিসেম্বর, ২০১৫

"ফেসবুকে লোকে শুধু ভালোটাই দেখায়, খারাপ ঢেকে রাখে"--এই সমালোচনা করা কতটুকু যুক্তিযুক্ত?

​"ফেসবুকে লোকে শুধু ভালোটাই দেখায়, খারাপ ঢেকে রাখে "-- এমন মন্তব্য করে 'মানুষের' সমালোচনা করাটাও এক ধরণের মূর্খতা যদি ​কেউ পুরো ব্যাপারটা মাথায় না রাখে।

এখানে ​কেউ 'শো অফ' করাটা নিয়ে প্রশ্ন তুলতে পারে কেননা​ লোক দেখানো কাজ ভালো নয়, ক্ষতি অনেক।​​ লোক দেখানো প্রবণতা আমাদের এমন মানুষ বানিয়ে ফেলতে থাকে যা আমরা পছন্দ করিনা।​ নিজেদের অজান্তেই আমরা তখন ভিন্ন কোন বাজে মানুষে পরিণত হতে থাকি।​ আবার, লোককে নিজের ভালো দেখিয়ে তাদের হিংসা বাড়িয়ে ​দেয়ার ফলে নানানভাবে ​নিজের ক্ষতি হবার রাস্তাও তৈরি হয়।

কিন্তু লোকে দেখালে​ তো​ ভালোটাই দেখায়, দেখাবেই। লোকে সুন্দর পোশাক পরে সামনে আসার মানে কিন্তু এই দাবী করা নয় যে তার পোশাকের নিচে লজ্জার বিষয় নেই।​ যারা ভালো দেখায়, তার মানে অন্তত তারা ভালো বিষয়টা বুঝে। তারা ভালোকে 'কেয়ার' করে, ভালোকে 'উত্তম' বলে মনে করে। এটা কি একটা ভালো নয়? মুসলিম হিসেবে আমাদের কাজ কি 'ভালো'কে প্রতিষ্ঠিত করা ও ছড়িয়ে দেয়া নয়?

যারা প্রকাশ্যেই খারাপ কথা বলে, খারাপ কাজ করে, তারা তো আরো খারাপ। তারা তো সমাজে আরেক মাত্রার খারাপকে প্রতিষ্ঠিত করে, ছড়িয়ে দিতে থাকে।​ যারা খারাপ বিষয় লোকের সামনে উন্মোচিত করে তারা খারাপ কাজের সাক্ষী থাকার ব্যাপারটা ভয়ও করেনা। হয়ত গোপন ব্যাপারটা আল্লাহ ক্ষমা করে দিতেন ইস্তিগফার করায়, এখন অনেকে সাক্ষী রয়ে গেলো, এই কাজের হিসেবে তারাও অংশ হয়ে গেলো।

​বেশি ​সমালোচনা ঠিক নয়। অন্যদের উদ্দেশ্য বোঝা আমাদের মানবীয় যোগ্যতার অতীত। তাই সমালোচক হিসেবে নিজেকে বেশি পন্ডিত মনে হলে নিজেকে সতর্ক করা উচিত। আল্লাহ বান্দাকে গায়েব না জানিয়ে নানানভাবে বিনয়ী থাকতে বাধ্য করার পরিবেশ তৈরি করে রেখেছেন। অন্যের ব্যাপারে নির্দ্বিধায় সমালোচনা করার ক্ষেত্রে এটাও একটা সাবধান থাকার বিষয়।

সব সমস্যার বেশি সরলীকরণ করলে সমস্যা। জটিল সমস্যার সরল সমাধান চাইতে গেলে সব হারাতে হয়। একই বুঝ দিয়ে সবাইকে বুঝতে গেলেও বিপদ।

[১২ নভেম্বর, ২০১৫]